সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৪:১০ অপরাহ্ন

ডিমলায় আগুনে পুড়ে ১৩টি দোকান ভষ্মীভূত

ডিমলায় আগুনে পুড়ে ১৩টি দোকান ভষ্মীভূত

নীলফামারী প্রতিনিধি: 

নীলফামারী ডিমলায় আগুনে পুড়ে ১৩টি দোকান ভষ্মীভূত হয়েছে।শুক্রবার(২৯ অক্টোবর)দিবাগত রাত তিনটায় উপজেলার গয়াবাড়ী ইউনিয়নের শুটিবাড়ি বাজারে মীম টেইলার্স থেকে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।পরে ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন।এতে প্রায় ৩০ লাখ টাকার অধিক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ব্যবসায়ী নেতাদের দাবি।যদিও ফায়ার সার্ভিস বলছে,ক্ষতির পরিমাণ ২০ লাখ ও উদ্ধারকৃত মালামালের পরিমাণ ৮০ লাখ টাকা।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়,ঘটনার সময় উপজেলার গয়াবাড়ি ইউনিয়নের শুটিবাড়ি বাজারের বন্ধ মীম টেইলার্সে আগুন দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা ৯৯৯ ও ডিমলা ফায়ার সার্ভিসে কল করেন।খবর পেয়ে ডিমলা ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিস সিভিল ডিফেন্স নীলফামারী উপ-সহকারী পরিচালক এনামুল হকের নেতৃত্বে ডোমার ও জলঢাকা ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌছে যৌথ প্রচেষ্টায় এলাকাবাসীর সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হন।তাদের ধারনা বিদ্যুতের শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটতে পারে।শুটিবাড়ি বাজারের বণিক সমিতির সভাপতি আব্দুল বাতেন বলেন,এখনো সঠিকভাবে ক্ষতির পরিমাণ বলা না গেলেও আনুমানিক ৩০ লাখ টাকার অধিক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।এখন পর্যন্ত(শনিবার বিকেল)ক্ষতিগ্রস্ত ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেননি কোনো সরকারি কর্মকর্তাগণ।আমরা একটি কমিটি করে দিব যারা ক্ষতির পরিমাণ ও দোকানের সংখ্যা সঠিকভাবে নির্ধারণ করবেন।ডিমলা ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার নুর মোহাম্মদ বলেন,খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই।তবে আগুনের দীর্ঘতা দেখে ঘটনাস্থলে পৌঁছে খবর দিলে জেলার ডোমার ও জলঢাকা ফায়ার সার্ভিস ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।তবে তার আগেই ১৩টি দোকান আগুনে ভস্মীভূত হয়েছে।এতে ক্ষতি হয়েছে ২০ লাখ টাকা ও ৮০ লাখ টাকার মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে।এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন বলেন,আমরা ওই ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যসায়ীদের তালিকা চেয়েছি।তালিকা পেলে আমরা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠিয়ে দিব।

শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © 2022 Protidiner Kagoj