সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ১২:২৯ পূর্বাহ্ন

প্রবাসী স্ত্রীর উপর অমানুষিক নির্যাতন

প্রবাসী স্ত্রীর উপর অমানুষিক নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিনিধি: 

 ফরিদপুরের ভাঙ্গায় কালামৃধা ইউনিয়নের ভাষড়া গ্রামের ইতালি প্রবাসী রাজু মুন্সীর স্ত্রী লুবনা (২৪) বেগমের উপর পূর্ব-পরিকল্পিতভাবে অমানুষিক নির্যাতন চালায়, ফলে একটি দাঁত ভেঙ্গে যায় ও একটি দাঁত ঝুলে থাকে বলে অভিযোগ উঠে। এ বিষয় লুবনা বেগম, আমার মেয়ের গলা থেকে মাস খানেক আগে একটি স্বর্নের চেন জুয়েলের মেয়ে জানু নিয়ে যায়। চেনের কথা তাদেরকে বললে তারা আমাদের উপর চরম ক্ষোপের সৃষ্টি হয়। আমার স্বামী বাহিরে থাকে এবং আমাদের পরিবারে কোন পুরুষ মানুষ বাড়িতে নাই। সেই সুযোগে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে আমাদের হয়রানি করে আসতেছে।

এরই এক পর্যায় জুয়েলের স্ত্রী হোসনেয়ারা বেগম ৭অগাস্ট বিকাল আনুমানিক ৫টার সময় আমার মেয়ে রাফিয়ার হাত চেপে ধমকা-ধমকি করতেছে। আমার মেয়ে ভয়ে কেঁদে উঠলে আমি দৌড়ায়ে ঘটনা স্থলে গেলে, ওরা সংঘবদ্ধ হয়ে আমাদের এলোপাথাড়ি মারতে থাকে এবং রাস্তার ইট দিয়ে আমাকে স্বজরে আঘাত করে। এতে একটি দাঁত ভেঙ্গে মাটিতে পরে যায় এবং পাশের দুইটি দাঁত নড়ে যায়। এক পর্যায় আমি জ্ঞানহীন হয়ে পরি এবং উপস্থিত লোকজন আমাকে উপজেলা ভাঙ্গা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি করে। ভাঙ্গা হসপিটালে ভর্তি ছিলাম ৫দিন।

আমার শ্বশুরীকে মারধর করে এবং হসপিটালে প্রাথমিক চিকিৎসা নেয়। এখন ও আমার শরীরের অবস্থা তেমন ভালো না ঔষধ খেয়ে যাচ্ছি। লুবনা আরো বলেন, আমি নিজে বাদি হয়ে পাচ জনের নামে ভাঙ্গা থানায় একটি অভিযোগ করেছি। আমি আশা করছি প্রশাসনের কাছ থেকে এর বিচার পাবো। লুবনার শ্বশুরী বলেন, আমি মারামারির চিৎকার শুনে আগাইলে আমার চুল টেনে ফেলাইয়া দেয় এবং মারধর করে। আমি হসপিটাল থেকে ট্রিটমেন্ট নেই। আমি প্রবাসীর মা হয়ে বলতে চাই, কোন প্রবাসীর পরিবারের উপর যেন এমন নির্যাতন না হয়। কারণ প্রবাসীর পরিবার এমনেতেই অসহায় এরপরও যদি শারীরিক নির্যাতন সহ্য করতে হয়।

শেয়ার করুন

Comments are closed.




দৈনিক প্রতিদিনের কাগজ © All rights reserved © 2024 Protidiner Kagoj |