শনিবার, ১৫ Jun ২০২৪, ০৯:১২ অপরাহ্ন

শেখ কামালের আদর্শ ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান কৃষিমন্ত্রীর

শেখ কামালের আদর্শ ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান কৃষিমন্ত্রীর

বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী শেখ কামালের আদর্শ ও চেতনা আগামী প্রজন্মের মধ্যে ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক। তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মের ছেলেমেয়েদের মধ্যে তাঁর আদর্শ ছড়িয়ে দিতে পারলে বাংলাদেশ আরও উন্নত, বিকশিত ও সমৃদ্ধ হবে। আজ শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মিলনায়তনে ‘শেখ কামাল: বহুমাত্রিক অনন্য প্রতিভাবান সংগঠক’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র, বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামালের ৭৩তম জন্মদিন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটি এ সভার আয়োজন করে। বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান খন্দকার বজলুল হকের সভাপতিত্বে এবং আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেনের সঞ্চালনায় ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের উপাচার্য অধ্যাপক মান্নান চৌধুরী, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মশিউর রহমান, কলাম লেখক সুভাষ সিংহ রায় প্রমুখ আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, বর্তমান প্রজন্মের ছেলেমেয়েদের মধ্যে খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড কম পরিলক্ষিত হচ্ছে। ফুটবল খেলার মাঠে ফুটবল না খেলে দলবেঁধে বসে মোবাইল নিয়ে মগ্ন থাকে। দেশে যুবসমাজকে অবক্ষয়, অপসংস্কৃতি ও মোবাইল আসক্তি থেকে দূরে রাখতে শেখ কামালের আদর্শ চেতনাকে তরুণদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে হবে।

কৃষিমন্ত্রী এ সময় আরও বলেন, শেখ কামাল ছিলেন অত্যন্ত সৃজনশীল ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনের উজ্জ্বল নক্ষত্র। তিনি ছিলেন অনন্য ক্রীড়া সংগঠক, যিনি নিজে খেলাধুলায় অংশগ্রহণ করেছেন, আবার ক্রীড়া সংগঠন গড়ে তুলে খেলাধুলায় নতুন যুগের সূচনা করেছিলেন। তিনি নিজে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করেছেন, পাশাপাশি সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘স্পন্দন’ গঠন করেছিলেন। একাধারে শেখ কামাল ছিলেন রাজনৈতিকভাবে সচেতন ও দেশপ্রেমিক। তিনি উনসত্তরের গণ-অভ্যুত্থান ও মহান মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। মন্ত্রী বলেন, শেখ কামাল বেঁচে থাকলে ক্যারিশমাটিক নেতায় পরিণত হতেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুপস্থিতিতে দেশকে সঠিক নেতৃত্ব দিতে সক্ষম হতেন।

শেয়ার করুন

Comments are closed.




দৈনিক প্রতিদিনের কাগজ © All rights reserved © 2024 Protidiner Kagoj |