রবিবার, ১৪ Jul ২০২৪, ১১:৪১ পূর্বাহ্ন

ময়মনসিংহ জেলা আ’লীগের কমিটি ঘোষণার পর বিদ্রোহীদের অপপ্রচার, কৌশল বিএনপির ফর্মুলা!

ময়মনসিংহ জেলা আ’লীগের কমিটি ঘোষণার পর বিদ্রোহীদের অপপ্রচার, কৌশল বিএনপির ফর্মুলা!

ময়মনসিংহ জেলা আ’লীগের কমিটি ঘোষনার পর বিদ্রোহীদের অপপ্রচার

সোনিয়া সুলতানা, নিজস্ব সংবাদদাতা : দীর্ঘদিন পর কেন্দ্র থেকে ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার পর জেলাজুড়ে আনন্দের বন্যা বইছে। কমিটিতে যোগ্য নেতৃত্ব আর মেধাবী দেখে একটি মহল চক্রান্ত করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। চক্রান্তের অংশ হিসাবে ঘোষণার পরপরই মানববন্ধনসহ মনগড়া কর্মসূচী দিয়ে মাঠ ঘোলা করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। নবগঠিত কমিটির সমর্থকরা বলছেন, এদের কার্যক্রম বিএনপির আদলে অর্থাৎ আওয়ামী লীগকে কোনঠাসা করার অপপ্রয়াসের অংশ। বিএনপি নির্বাচনে হেরে গেলেই আওয়ামী লীগকে যেমন দোষারোপ করে, কমিটিবিরোধী আন্দোলনকারীরাও যেন তাই।

অভিযোগ উঠেছে, এই বিরোধীতাকারীদের নেতৃত্বে আছেন ২/১ জন। এরাই অপপ্রচার ও নেতা-কর্মীদের বিভ্রান্ত করতে নানান চক্রান্ত করছে। পাশাপাশি চক্রান্তে মুক্তিযোদ্ধাদেরকেও বিতর্কিত করছে। এদের নেতৃত্বে একটি সিন্ডিকেট এসব করছে। দলীয়ভাবে এরা বিদ্রোহী হিসাবে প্রচার করে কমিটিতে ভিড়ার কৌশল বলে মনে করছেন নির্বাচিত কমিটির নেতৃবৃন্দের সমর্থকরা।

তারা বলছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আ লীগের সভাপতি মাঠ পর্যায়ে খোঁজ খবর নিয়েছেন। দলের সাধারণ সম্পাদক , সাংগঠনিক সম্পাদক নবগঠিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা দেন। কমিটি ঘোষণার পর থেকেই মাঠে নেমেছে চক্র। যদিও নেতা-কর্মীরা এসব কর্মসূচী বয়কটের আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, সুষ্ঠু নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগের নিকট নির্মম পরাজয়ের পর বিএনপি বলে বেড়ায়- নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি, এই সমস্যা, সেই সমস্যা। নানান অজুহাত। এই বিরোধী চক্রও তাই। সারাবছর তাদের কাজের অংশ মানুষকে বিভ্রান্ত করা। এক্ষেত্রে নিজেদের আওয়ামী লীগের নেতা কখনও আগামীতে নেতা হবেন এমন অপপ্রচার করে নেতা-কর্মীদের বিভ্রান্ত করা পথভ্রস্ট করাই মূল অপকাজ।

এছাড়ও আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেও জনপ্রিয়তা কোনঠাসা করতেও এই অপকৌশল । এদিকে এই নামধারী নেতাদের কমিটিতে দেখতে না পাওয়ায় তাদের সমর্থকদের চাঙ্গা রাখতেই এই প্রতিবাদসহ কর্মসূচী লোক-দেখানো। আবার এদের ধারণা- এভাবে বিরোধী কর্মসূচী নিলে তাদের ঠেকাতে হাইকমান্ডের পক্ষ থেকে পদ মিলতেও পারে। যদিও তারা বলছেন, এদেরকে আমরা আগে থেকেই চিনি, জানি। যাদের কাজই হচ্ছে, নিজেদের আওয়ামী লীগ পরিচয় দিয়ে আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের দুর্নাম করা। এবার তারা শুরু থেকেই করতে শুরু করেছে।

জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ বলেন, পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ত্যাগী ও কর্মঠ নেতাদের মূল্যায়ন করা হয়েছে। বিরোধীদের অপপ্রচার তারা গুরুত্ব দিচ্ছেন না বললেই চলে। তারা বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য নেতৃত্বে ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগ উন্নয়ন কার্যক্রমসহ দলীয় সাংগঠনিক কার্যক্রম শক্তিশালী ও সুদৃঢ় ভিত গড়তে সক্ষম হয়েছে। অপপ্রচারকারীদের প্রতিহত করে আগামীতে জেলা আওয়ামী লীগ ময়মনসিংহের রাজনীতিতে আওয়ামী লীগের সুসংগঠিত করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ আছে বলে জানান তারা ।

শেয়ার করুন

Comments are closed.




দৈনিক প্রতিদিনের কাগজ © All rights reserved © 2024 Protidiner Kagoj |